Home / সারাদেশ / বগুড়া / বগুড়ায় সামাজিক দুরত্বে অনিহা, নেই মাস্ক, নমুনা পরীক্ষাও কমে গেছে

বগুড়ায় সামাজিক দুরত্বে অনিহা, নেই মাস্ক, নমুনা পরীক্ষাও কমে গেছে

অতিথি প্রতিবেদকঃ উত্তরান্চলের রাজশাহী ও রংপুর বিভাগের ১৬ জেলার মধ্যে বগুড়ায় সর্বোচ্চ করোনা সনাক্ত এবং মৃত্যু হলেও সামাজিক দুরত্ব ও মাক্স পড়া এবং নমুনা পরীক্ষার প্রবনতা একেবারেই কমে গেছে।
সরেজমিনে দেখা গেছে, বগুড়ার গ্রামান্চলের বাজার, হাট, ঘাট কোথাও মাক্স নিয়ে সচেতন নয় অধিকাংশ। হাটে হাজার হাজার মানুষ কেনাবেচা করলেও খুবই কম সংখ্যক মানুষের মাঝে মাক্স দেখা যায়। সামাজিক দুরত্ব কেউ মানছেই না।
শহরের ব্যাস্ততম এলাকা সাতমাথা, কাচাবাজার, মাছ বাজার সহ ব্যাস্ততম এলাকায় অধিকাংশ জায়গাতে মাক্স এবং সামাজিক দুরত্ব চোখেই পড়ে না। কেউবা মাক্স পড়লেও তা থাকে গলায়।

বগুড়ার ফতেহ আলী বাজারে গিয়ে দেখা যায়, কেউ কেউ মাক্স পড়লেও তা গলার কাছে ঝুলানো। মাক্স নেই এমন একজন শফিক নামের বাদুরতলার পরিচয় দিয়ে বললেন, ভাই মাক্স সাথে না আনলে হঠ্যাৎ যদি পুলিশ র্যাব, সেনা সদস্যরা ধরে বসে তাই এনেছি।
শহরের জ্বলেশ্বরীতলায় কথা হলো মাক্স ছাড়া কয়েকজনের সাথে। নাম বললো হিমেল, রবিন, কায়েস। কিন্তু পরিচয় দিলনা। তবে তারা বললো, মাক্স পড়িনি শুধু আমাদের দেখলেন। শহর, অফিস খুজে দেখুন কতজন মাক্স পড়ে সামাজিক দুরত্ব মানে। আমরা করলেই দোষ।
সারিয়াকান্দী, ধুনটে যমুনায় বেড়াতে আসা দু, একজন মাক্স পড়লেও কেউ পড়েনি। তাদের প্রশ্ন করলে বলে ভাই, এ সব প্রশ্ন করবেন না। মুক্ত হাওয়ায় এসেছি।
বগুড়া সিভিল সার্জন অফিসের দায়ীত্ব প্রাপ্ত চিকেৎসক ফরজানুল হক জানান,রাজশাহী ও রংপুর বিভাগের ১৬ জেলার মধ্যে বগুড়ায় করোনা সনাক্ত এবং মৃত্যের হার বেশী। এ পর্যন্ত সনাক্ত ৫ হাজার ৯৪ জন। সারিয়াকান্দি উপজেলায় ১০৪ জন,সোনাতলা ৮৬, শিবগন্জ ১৩৪, আদমদিঘী ৮৮, দুপচাচিয়া ১৪৩, কাহালু ১১৫,নন্দীগ্রাম ৫৩, শেরপুর ২৭৬, ধুনট ৮৮, বগুড়া সদর ৩৭৩৮, গাবতলী ২০৯, শাহজাহানপুর ২৬৮ জন। জেলায় মারা গেছেন তিন জন চিকেৎসক সহ ১১৯ জন।
জেলা প্রশাসক মোঃ জিয়াউল হক জানান, আমরা নিয়মিত ভ্রাম্যমান আদালত পরিচালনা করে যাচ্ছি। সচেতনতামূলক কাজও চলছে। এলাকা ভিত্তিক লক ডাউনও দিচ্ছি। মাক্স পড়ার প্রবনতা এবং সামাজিক দুরত্ব তো মানছেই।

বগুড়ার জনসংখ্যা ২৯৮৮৫৬৭ জন হলেও সিভিল সার্জন অফিস সূত্রে জানা যায়, সেখানে এ পর্যন্ত নমুনা পরীক্ষা হয়েছে ৩৪৩৯৭ জনের।
বগুড়া শহীদ জিয়াউর রহমান মেডিক্যাল কলেজের অধ্যক্ষ ডাঃ রেজাউল আলম জুয়েল জানান, আগের চেয়ে নমুনা পরীক্ষার প্রবনতা এখন কমে গেছে। আগে যেমন নমুনা পরীক্ষার জন্য মানুষ তৎপর ছিল এখন তা দেখা যাচ্ছেনা। তাই নমুনাও আগের চেয়ে কম আসছে।

Check Also

বগুড়া জেলা জজ কর্তৃক আইনজীবীদের সাথে অসৌজন্যমুলক আচরণের প্রতিবাদে মানববন্ধন

প্রেস রিলিজ : বীর মুক্তিযাদ্ধা ও বাংলাদেশ বার কাউন্ডিলের সদস্য এ্যাডঃ রেজাউল করিম মন্টুকে দুর্নীতি …

error: Content is protected !!
%d bloggers like this:

Powered by themekiller.com