Home / Uncategorized / বগুড়ায় ভ্রাম্যমাণ আদালতে সাত মামলা ও জরিমানা

বগুড়ায় ভ্রাম্যমাণ আদালতে সাত মামলা ও জরিমানা

ষ্টাফ রিপোর্টারঃ বগুড়ায় পৃথক ছয়টি ভ্রাম্যমাণ আদালতে ওষুধ আইন, অত্যাবশ্যকীয় পণ্য নিয়ন্ত্রণ আইন, পেট্রোলিয়াম আইনে ও লাইসেন্স বিহীন এল.পি.জি গ্যাস সিলিন্ডারের ব্যবসার অপরাধে সাতটি মামলা ও অর্থদণ্ড দেওয়া হয়েছে।

বৃহস্পতিবার (১০ সেপ্টেম্বর) এসব ভ্রাম্যমাণ আদালত পরিচালনা করেন জেলা প্রশাসনের নির্বাহী ম্যাজিস্ট্রট মাজহারুল ইসলাম চৌধুরী , ফেরদৌস আরা, এ.টি.এম কামরুল ইসলাম, মারুফ আফজাল রাজন
মো. তাসনিমুজ্জামান ও মো. নাছিম রেজা।

ভ্রাম্যমাণ আদালত সূত্রে জানা গেছে, ওষুধ আইন-১৯৪০ অনুযায়ী মিসব্রান্ডেড ওষুধ বিক্রি করার অপরাধে সাতমাথার রাজ ফার্মেসীকে ৫০ হাজার টাকা অর্থদণ্ড দেন নির্বাহী ম্যাজিস্ট্রেট  এ.টি.এম কামরুল ইসলাম।
পেট্রোলিয়াম আইন-২০১৬ অনুযায়ী লাইসেন্স বিহীন এল.পি.জি গ্যাস সিলিন্ডারের ব্যবসা করার অপরাধে একটি প্রতিষ্ঠানকে ৫ হাজার টাকা অর্থদণ্ড দেন নির্বাহী ম্যাজিস্ট্রেট তাসনিমুজ্জামান।
অত্যাবশ্যকীয় পণ্য নিয়ন্ত্রণ আইন ১৯৫৬ এর ৩ ও ৬ ধারা অনুযায়ী লাইসেন্স বিহীন ব্যবসা পরিচালনার অপরাধে সাতমাথার দুরন্ত সাইকেল ঘরকে ১০ হাজার টাকা, হোসেন ট্রেডার্সকে ৫,০০০ টাকা অর্থদণ্ড দেন  নির্বাহী ম্যজিস্ট্রেট মো. নাছিম রেজা।

একই অপরাধে দি প্যালেস সাইকেল ঘরকে ১০ হাজার টাকা অর্থদণ্ড দেন  নির্বাহী ম্যাজিস্ট্রেট  মাজহারুল ইসলাম চৌধুরী।

এছাড়া অত্যাবশ্যকীয় পণ্য নিয়ন্ত্রণ আইন ১৯৫৬ অনুযায়ী লাইসেন্স বিহীন ব্যবসা পরিচালনার অপরাধে ২ টি মামলায় ৩ হাজার টাকা অর্থদণ্ড দেন  নির্বাহী ম্যাজিস্ট্রেট মারুফ আফজাল রাজন ও ফেরদৌস আরা।

এসব ভ্রাম্যমাণ আদালতে মোট সাতটি মামলায় মোট ৮৩ হাজার টাকা অর্থদণ্ড দেওয়া হয়েছে।

Check Also

বগুড়ায় বিয়াম মডেল স্কুল ও কলেজের শিক্ষক তাড়াতে শিক্ষার্থীকে ব্যবহার

ষ্টাফ রিপোর্টারঃ বগুড়ায় বিয়াম মডেল স্কুল ও কলেজের শিক্ষক তাড়াতে শিক্ষার্থীকে ব্যবহার ।যে ছাত্রীর ছবি …

error: Content is protected !!
%d bloggers like this:

Powered by themekiller.com