Home / সারাদেশ / বগুড়া / বগুড়ায় অসুস্থ্য আওয়ামীলীগ নেতার সয্যাপাশে কেন্দ্রীয় কৃষকলীগ নেতা ইমারত আলী

বগুড়ায় অসুস্থ্য আওয়ামীলীগ নেতার সয্যাপাশে কেন্দ্রীয় কৃষকলীগ নেতা ইমারত আলী

যমুনা নিউজ বিডি:  বগুড়া জেলা আওয়ামীলীগের সহ-সভাপতি ও প্রবীন রাজনিতীবিদ টিএম মুছা পেস্তা হৃদরোগে আক্রান্ত হয়ে চার দিন বগুড়া শহীদ জিয়াউর রহমান মেডিকেল কলেজে চিকিৎসাধীন থাকার পর গতকাল মঙ্গলবার বাড়ী ফিরার পর তাকে দেখতে যান বগুড়া-৭ আসনের জনপ্রিয় কেন্দ্রীয় কৃষকলীগ নেতা আলহাজ্ব ইমারত আলী। এসময় টিএম মুছা পেস্তা ইমারত আলীকে বলেন, তুমি তো ৪২ বগুড়া-৭ আসন হতে একাদশ জাতীয় সংসদ সদস্য নির্বাচনে মনোনয়ন পত্র জমা দিয়েছো। তিনি বলেন আমিও ১৯৮৬ সালে এই আসন হতে জাতীয় সংসদে নির্বাচনে নৌকা প্রতীন নিয়ে বিপুল ভোটের ব্যাবধানে বিজয়ী হয়েছিলাম। কিন্তু তৎকালীন ক্ষমতাসীন সরকার আমাকে চক্রান্ত করে পরাজিত করে। এর প্রেক্ষিতে জনগন ক্ষিপ্ত হয়ে বিভিন্ন আনন্দোলন সংগ্রাম করে। যার ফল¯্রতিতে তৎকালীন সরকার আমাকে গ্রেফতার করে কারাগারে নিয়ে যায়। এরপর ১৯৯১ সালেও বেগম খালেদা জিয়ার সাথেও সংসদ নির্বাচনে প্রতিদ›দ্বীতা করি। এই দীর্ঘ আনন্দোলন সংগ্রামে সব সময় পাশে থেকে ব্যাপক ভ‚মিকা পালন করেছে জনপ্রিয় কেন্দ্রীয় কৃষকলীগ নেতা আলহাজ্ব ইমারত আলী। আমি তার সর্বাঙ্গীন সাফল্য কামনা করি। এরপর থেকে ২০০৮ সালে নির্বাচনে জননেত্রী শেখ হাসিনা নৌকা প্রতীক দিয়ে তোমাকে মনোনীত করেছিল সেদিন ও আমি তোমার পাশে ছিলাম। মহাজোটের কারনে দলের নির্দেশনায় জোট প্রার্থীকে আসনটি ছেড়ে দেয়। আবারো ২০১৪ সালে একই ঘটনার কারনে তোমাকে নৌকা প্রতীক দেওয়ার সিদ্ধান্ত নিয়েও দলের দিকনির্দেশনায় আবারো আসনটি মহাজোটকে ছেড়ে দেয়। মহাজোটের প্রার্থীর পক্ষে কাজ করে আমরা লক্ষাধিক ভোট জননেত্রী শেখ হাসিনাকে উপহার দিয়েছিলাম। এবারের নির্বাচনে উক্ত আসনটি মহাজোটকে ছেড়ে না দিয়ে মূল নৌকা মার্কা প্রার্থীকে ভোট করার সুযোগ দেওয়ার জন্য জননেত্রী শেখ হাসিনার প্রতি আকুল আবেদন জানাচ্ছি। যেহেতু এই আসনটিতে ইমারত আলী দীর্ঘদিন ধরে নিরলস ভাবে কাজ করে যাচ্ছে।

Check Also

অর্ধেকের বেশি লাশ চেনার উপায় নেই!

যমুনা নিউজ বিডি :   রাজধানীর চকবাজারে ভয়াবহ অগ্নিকাণ্ডের ঘটনায় অর্ধেকের বেশি লাশ দেখে চেনার কোনো উপায় নেই। দেহগুলো …

Powered by themekiller.com