Home / সারাদেশ / বগুড়া / পাঁচ জেলায় হবে লাইট ইঞ্জিনিয়ারিং শিল্পপার্ক

পাঁচ জেলায় হবে লাইট ইঞ্জিনিয়ারিং শিল্পপার্ক

যমুনা নিউজ বিডিঃ ঢাকা, নারায়ণগঞ্জ, যশোর, বগুড়া ও নরসিংদী এই পাঁচ জেলায় বিশেষায়িত লাইট ইঞ্জিনিয়ারিং শিল্পপার্ক স্থাপনের সিদ্ধান্ত নিয়েছে সরকার। শিল্পপার্কগুলোতে স্থাপিত শিল্প-কারখানার জন্য দক্ষ জনবলের  জোগান নিশ্চিত করতে একই সঙ্গে লাইট ইঞ্জিনিয়ারিং ট্রেনিং ইনস্টিটিউট স্থাপন এবং বিশ্বমানের প্রশিক্ষক ও প্রযুক্তি ব্যবহার করে প্রশিক্ষণ ইনস্টিটিউটগুলোতে দেশীয় জনবলের দক্ষতা বৃদ্ধির উদ্যোগ থাকবে।

গতকাল শিল্প মন্ত্রণালয়ে অনুষ্ঠিত এক সভায় এ সিদ্ধান্ত নেওয়া হয়েছে। সংশ্লিষ্ট মন্ত্রণালয় থেকে পাঠানো সংবাদ বিজ্ঞপ্তিতে বলা হয়, লাইট ইঞ্জিনিয়ারিং শিল্পের বিকাশে শিল্প মন্ত্রণালয় চিহ্নিত কার্যক্রমসমূহ বাস্তবায়নে করণীয় নির্ধারণে এই সভাটি অনুষ্ঠিত হয়। এতে সভাপতিত্ব করেন শিল্পসচিব কে এম আলী আজম। সভায় মন্ত্রণালয়ের অতিরিক্ত সচিব মো. হেলাল উদ্দিন এনডিসি হালকা প্রকৌশল শিল্প খাত বিকাশে প্রণীত সুপারিশ তুলে ধরেন। সভায় জানানো হয়, হালকা প্রকৌশল শিল্পের বিকাশে শিল্প মন্ত্রণালয় ইতিমধ্যে লাইট ইঞ্জিনিয়ারিং শিল্প নীতিমালা প্রণয়নের কাজ শুরু করেছে। সংশ্লিষ্ট অংশীজনদের সঙ্গে আলোচনা করে এটি চূড়ান্ত করা হবে। পাশাপাশি এ খাতের উদ্যোক্তাদের উৎপাদিত পণ্য বিপণন নিশ্চিত করতে সাব কন্ট্রাকটিং আইন প্রণয়নের উদ্যোগ নেওয়া হবে। এ লক্ষ্যে বিসিককে দ্রুত আইনের খসড়া প্রণয়নের নির্দেশনা দেওয়া হয়। আইন প্রণয়নের আগ পর্যন্ত সাব-কন্ট্রাকটিং বিধিমালার আওতায় উদ্যোক্তাদের পণ্য বিক্রয়ের সুযোগ বাড়াতে জাতীয় শিল্পনীতিতে বিষয়টি অন্তর্ভুক্ত করার সিদ্ধান্ত গৃহীত হয়। সভায় অংশ নেন এসএমই ফাউন্ডেশনের ব্যবস্থাপনা পরিচালক মো. সফিকুল ইসলাম, বাংলাদেশ চেম্বার অব ইন্ডাস্ট্রিজের (বিসিআই) সভাপতি আনোয়ারুল আলম চৌধুরী (পারভেজ), বিসিক পরিচালক ড. মোহা. আবদুস ছালাম, শিল্প মন্ত্রণালয়ের যুগ্ম সচিব মো. সেলিম উদ্দিন, বাংলাদেশ লাইট ইঞ্জিনিয়ারিং শিল্প মালিক সমিতির সভাপতি মো. আবদুর রাজ্জাক প্রমুখ।

Check Also

সোনালী অতীতের ফুটবল লড়াই : বগুড়ার কাছে হারলো ঢাকা

ষ্টাফ রিপোর্টারঃ বগুড়ায় বাংলাদেশ জাতীয় দলে খেলা সাবেক ফুটবলাররা খেলতে আসছে। তারা বগুড়ার সাবেক ফুটলারদের …

error: Content is protected !!
%d bloggers like this:

Powered by themekiller.com