Breaking News
Home / সারাদেশ / রংপুর বিভাগ / পঞ্চগড় পৌরসভায় সামান্য বৃষ্টিতে জলাবদ্ধতা, দুর্ভোগ জনগণের

পঞ্চগড় পৌরসভায় সামান্য বৃষ্টিতে জলাবদ্ধতা, দুর্ভোগ জনগণের

যমুনা নিউজ বিডিঃ পঞ্চগড় পৌরসভা এলাকায় সামান্য বৃষ্টিতে জলাবদ্ধতা দেখা দিয়েছে। এতে করে বিভিন্ন স্থানে দুর্ভোগে পড়তে দেখা গেছে সাধারণ মানুষদের। জানা গেছে, দেশের সর্ব উত্তরের প্রান্তিক জেলা হিমালয়ের পাদদেশে অবস্থিত পঞ্চগড় সমুদ্রতল থেকে প্রায় ১৫০ ফুট (৪৬ মিটার) উচ্চতায় অবস্থিত। অতি বৃষ্টিতে এখানে বন্যা দেখা না গেলেও মাঝে মধ্যে পাহাড়ি ঢলে জেলার নিম্ন অঞ্চল প্লাবিত হতে দেখা যায়। আর এই বৃষ্টির পানি নিষ্কাশনের জন্য শহরে পর্যাপ্ত ড্রেন থাকলেও তা অনিয়ম ও অব্যবস্থাপনায় এবং অপরিচ্ছন্নতায় জলাবদ্ধতায় দুর্ভোগ পোহাচ্ছে স্থানিয়রা।

স্থানীয়দের অভিযোগ সময় মত নালা (ড্রেন) পরিষ্কার না করায় এই সমস্যার সৃষ্টি হচ্ছে। যে পরিকল্পনায় নালা (ড্রেন) গুলো তৈরি করার প্রয়োজন ছিল সে হিসেবে করা হয় নি। গত ৩ দিন যাবৎ এ জেলায় টানা ভাড়ি বর্ষণের শহরসহ পৌর এলাকার বিভিন্ন স্থানে নতুন করে জলাবদ্ধতা দেখা দিয়েছে। নালা ড্রেনগুলো ময়লা-আবর্জনায় ভরাটের কারণে ঠিকমতো পানি নিষ্কাশন হচ্ছে না। ফলে পৌর এলাকার পাড়ায় পাড়ায় জলাবদ্ধতা সৃষ্টি হচ্ছে। সামান্য বৃষ্টিতেই চরম ভোগান্তিতে পড়তে হচ্ছে শহর ও পৌরবাসীকে। সরেজমিনে মঙ্গলবার (১৫ সেপ্টেম্বর) পৌর শহরের কয়েকজন বাসিন্দার সঙ্গে কথা বলে জানা গেছে, পৌর এলাকার বিভিন্ন মহল্লায় পানি নিষ্কাশনের নালা (ড্রেন) রয়েছে। এসব নালা দিয়ে শহরের পানি করতোয়া নদীতে গিয়ে পড়ে। আগে বৃষ্টি নামার কিছুক্ষণের মধ্যেই পানি নেমে যেত। কিন্তু বর্তমানে পানি নিষ্কাশনের নালাগুলো ময়লা-আবর্জনায় আটকে আছে। ফলে ঠিকমতো পানি নিষ্কাশন হচ্ছে না। এতে পৌর এলাকার অধিকাংশ পাড়া-মহল্লা দীর্ঘ সময় ধরে জলাবদ্ধতা থাকছে। অনেক স্থানে নালা (ড্রেন) না থাকায় পানি নিষ্কাশনের ব্যাবস্থার জোর দাবি জানিয়েছেন স্থানীয়রা। অন্যদিকে শহরের প্রাণকেন্দ্রে অবস্থিত পঞ্চগড় আধুনিক সদর হাসপাতালের মূল ফটকসহ আশপাশ, জেলা প্রশাসকের কার্যালয়ের আশপাশ, পূর্ব মোলানীপাড়া, রৌশনাবাগ ও পানি উন্নয়ন বোর্ডের আশপাশসহ বিভিন্ন স্থানে জলাবদ্ধতা চোখে পড়েছে। এই জলাবদ্ধতার পানি নিষ্কাশনের জন্য কাজ করা হচ্ছে বলে পৌর কর্মকর্তারা জানালেও তেমন ভাবে কাজ চোখে পড়ে নি। এ দিকে পঞ্চগড় পৌর মেয়র তৈহিদুল ইসলাম জানান, যে হারে বৃষ্টি হচ্ছে তাতে একটুতেই জলাবদ্ধতার সৃষ্টি হচ্ছে। মূলত স্থানীয়দের ফেলা ময়লা-আবর্জনার কারণে বিভিন্ন পয়েন্টে নালা (ড্রেন) বন্ধ হয়ে গেছে। যার কারণে বৃষ্টির পানি যাচ্ছে না। আমরা পৌরসভার পক্ষ থেকে নালা (ড্রেন) গুলো পরিষ্কার করে পানি নিষ্কাশনের জন্য কাজ করছি।

Check Also

বগুড়ায় নতুন আক্রান্ত ৩১, সুস্থ্য ২৩

 স্টাফ রিপোর্টারঃ বগুড়ায় গেল ২৪ ঘন্টায় নতুন করে ৩১জন করোনায় আক্রান্ত হয়েছেন। ২১৫ নমুনার ফলাফলে …

error: Content is protected !!
%d bloggers like this:

Powered by themekiller.com