Home / সারাদেশ / রাজশাহী বিভাগ / নওগাঁয় ছুরিকাঘাতে থানার ওসি এবং এএসআই আহত

নওগাঁয় ছুরিকাঘাতে থানার ওসি এবং এএসআই আহত

নওগা প্রতিনিধি: নওগাঁয় বাধ্যতামূলক অবসরে পাঠানো সাবেক এক সরকারি কর্মকর্তার ছুরিকাঘাতে দুই পুলিশ কর্মকর্তা আহত হয়েছেন। বুধবার সকাল ১০টার দিকে নওগাঁ শহরের উকিলপাড়ায় ওই ঘটনা ঘটে। আহতরা হলেনঃ নওগাঁ সদর মডেল থানার ওসি (তদন্ত) আনোয়ার হোসেন ও এএসআই হানিফ উদ্দিন মণ্ডল। তাদেরকে প্রথমে নওগাঁ সদর হাসপাতালে ভর্তি করা হয়। তবে গুরুতর আহত আনোয়ার হোসেনকে পরে এয়ার অ্যাম্বুলেন্সে ঢাকায় পাঠানো হয়।

দুই পুলিশ কর্মকর্তাকে ছুরিকাঘাতের ঘটনায় অভিযুক্ত মাহতাব-ই-রাজু নামে সাবেক সরকারি কর্মকর্তাকে গ্রেফতার করা হয়েছে। মামলা দিয়ে তাকে আদালতের মাধ্যমে জেল-হাজতে পাঠানো হয়েছে। রাজু নওগাঁ উকিল পাড়ার মৃত আবুল ফজলের ছেলে।

নওগাঁ সদর থানার ওসি আব্দুল হাই জানান, মাহতাব-ই-রাজু টাঙ্গাইলে সরকারি একটি প্রতিষ্ঠানে কর্মরত ছিলেন। সম্প্রতি তাকে বাধ্যতামূলক অবসর দেওয়া হলে তিনি নওগাঁ শহরের নিজ বাড়িতে ফিরে আসেন। তবে বাড়ি ফেরার পর থেকে তিনি উচ্ছৃঙ্খল আচরণ শুরু করেন। কখনও কখনও আশ-পাশের বাড়িগুলোতে ইটপাটকেল নিক্ষেপ করে ভাংচুরও করেন। মাহতাব-্ই-রাজু মঙ্গলবার সন্ধ্যায় আবারও উচ্ছৃঙ্খলতা শুরু করলে বোন নাজনীন নাহার সদর মডেল থানায় ভাইয়ের বিরুদ্ধে লিখিত অভিযোগ করেন। এরপর রাত ১১টার দিকে ওসি (তদন্ত) আনোয়ার হোসেন এ এসআই হানিফ উদ্দিন মণ্ডলকে সঙ্গে নিয়ে ওই বাড়িতে যান। তারা মাহতাব-ই-রাজুর সঙ্গে কথা বলে তাকে শান্ত থাকার পরামর্শ দিয়ে ফিরে যান।

বুধবার সকাল থেকে মাহতাব আবারও তার বাড়িতে তাণ্ডব চালাতে শুরু করে। এক পর্যায়ে তিনি ঘরের ভিতরে প্রবেশ করে আত্মহত্যা করার কথা জানিয়ে দরজা ভেতর থেকে বন্ধ করে দেন। এতে পরিবারের সদস্যরা আতঙ্কিত হয়ে পড়েন। এ সময় তার বোন নাজনীন নাহার আবারো নওগাঁ সদর থানায় ফোন করে সাহায্য চান। তখন নওগাঁ সদর থানার ওসি (তদন্ত) ফোর্স নিয়ে ওই বাড়িতে যান। প্রথমে ডাকাডাকি করে কোন সাড়াশব্দ না পাওয়ায় তিনি দরজা ভেঙ্গে ভিতরে প্রবেশ করেন তারা। এ সময় দরজার আড়ালে লুকিয়ে থাকা মাহতাব-ই- রাজু পুলিশ কর্মকর্তা আনোয়ার হোসেনের ওপর ঝাঁপিয়ে পড়েন এবং এলোপাথারি ছুরিকাঘাত করেন। তাকে বাঁচাতে এগিয়ে গেলে মাতাব-ই-রাজু এএসআই হানিফ মন্ডলকেও ছুরিকাঘাত করেন। পরে অতিরিক্ত পুলিশ গিয়ে আহত ওই দুই পুলিশ কর্মকর্তাকে উদ্ধার করে নওগাঁ সদর হাসপাতালে ভর্তি করেন। একই সঙ্গে দুই পুলিশ কর্মকর্তাকে ছুরিকাঘাতের ঘটনায় মাহতাব-ই-রাজুকে গ্রেফতার করা হয়।

মাহতাব-ই-রাজুর মা নাছিমা খাতুন জানান, চাকরি থেকে বাধ্যতামূলুক অবসর দেয়ার পর থেকে তার ছেলে মানসিকভাবে অসুস্থ্ হয়ে পড়েছে। নওগাঁ সদর থানার ওসি আব্দুল হাই বলেন, ওই ঘটনায় মাহতাব-ই-রাজুর নামে মামলা দায়ের করা হয়েছে এবং তাকে আদালতের মাধ্যমে জেল হাজতে পাঠানো হয়েছে।

Check Also

শিবগঞ্জের মাঝিহট্টে প্রতিপক্ষের মারপিটে দুই জন আহত অতঃপর থানায় অভিযোগ

যমুনা নিউজ বিডি: বগুড়ার শিবগঞ্জ উপজেলার মাঝিহট্টে প্রতিপক্ষের মারপিটে মহিলাসহ আহত-২ অতঃ পর থানায় অভিযোগ। অভিযোগ …

Powered by themekiller.com