Home / সারাদেশ / ঢাকা বিভাগ / ড. সেলিনা আখতারকে এমপি চান মাদারীপুরবাসী

ড. সেলিনা আখতারকে এমপি চান মাদারীপুরবাসী

যমুনা নিউজ বিডি: সংরক্ষিত মহিলা আসনে ড. সেলিনা আখতারকে এমপি হিসেবে দেখতে চান মাদারীপুরবাসী। জাতির পিতা বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমানের সহচর ও মাদারীপুর জেলা আওয়ামী লীগের সাবেক শ্রমবিষয়ক সম্পাদক এবং জেলা শ্রমিক লীগের সভাপতি মরহুম হাজী মোহাম্মদ সুলতান হাওলাদারের কন্যা ড. সেলিনা আখতারকে মাদারীপুর ১, ২ ও ৩ সংরক্ষিত আসনের মহিলা এমপি হিসেবে দেখতে চান স্থানীয়রা।
জানা যায়, ড. সেলিনা আখতার শুধু ডক্টররেট ডিগ্রিধারীই নন, তিনি অসহায় গরিব-দুঃখী মানুষের বন্ধুও। ইতোমধ্যেই তিনি কর্মদক্ষতা এবং সেবার মাধ্যমে মানুষের মন জয় করে নিয়েছেন। ড. সেলিনা আখতারের নাম যেন সবার মুখে মুখে।

ড. সেলিনা আখতার প্রতিবন্ধী শিশু শিক্ষা ও সেবা সংস্থার প্রতিষ্ঠাতা সাধারণ সম্পাদক ও নির্বাহী পরিচালক। এ ছাড়াও বাংলাদেশের বিভিন্ন সংগঠন-সংস্থার সঙ্গে জড়িত তিনি। সফলতা ও কর্মদক্ষতা ফলস্বরূপ প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার কাছ থেকে পুরস্কারও গ্রহণ করেছেন তিনি।

ড. সেলিনা আখতারের বংশ-পরিচয় সূত্রে আওয়ামী লীগ। তার বাবা মরহুম হাজী মোহাম্মদ সুলতান হাওলাদার ছিলেন জাতির পিতা বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমানের সহচর। তাই ড. সেলিনা আখতার জীবন-মরণ সামনে রেখে আওয়ামী লীগের হয়ে কাজ করে যাচ্ছেন। তিনি কখনো কারও ভয়ে পিছপা হননি। তিনি সবসময়ই নৌকার জয়ে কাজ করে যান।

একাদশ জাতীয় সংসদ নির্বাচনে নৌকা মার্কার জয়ের লক্ষ্যে তিনি সর্বদা মাঠে কাজ করে গেছেন। মাদারীপুর জেলাসহ বিভিন্ন পৌরসভার ওয়ার্ডে, মহল্লায় প্রচারণার কাজ করে গেছেন। তাই এবার ড. সেলিনা আখতারকে মাদারীপুরের মানুষ সংসদ সদস্য হিসেবে দেখতে চান।

এ ব্যাপারে ড. সেলিনা আখতার বলেন, আমি এমপি হওয়ার মতো যোগ্যতা রাখি। কারণ আমি সাধারণ অসহায় গরিব-দুঃখী মানুষের বন্ধু, তাদের কষ্ট আমি বুঝি। তাদের সঙ্গে আমি সর্বদা চলাফেরা করি। আর এ মানুষগুলোই আমাকে সাহস যুগিয়েছে। তারা আমাকে এ সংরক্ষিত আসনে এমপি হিসেবে দেখতে চায়। এটা আমার দাবি নয়, এটা মাদারীপুরবাসীর প্রাণের দাবি।

তিনি বলেন, আমি এমপি হতে পারব কিনা তা জানি না। তবে আমার আশা- প্রধানমন্ত্রী দেশরত্ন শেখ হাসিনা সব দিক বিবেচনা করে একজন সৎ, শিক্ষিত, সমাজসেবক এবং দায়িত্বশীল ব্যক্তিকেই এমপির দায়িত্ব দেবেন।

Check Also

বড় ভাইয়ের হাতে ছোট ভাই খুন

যমুনা নিউজ বিডি: চুয়াডাঙ্গা সদর উপজেলার শাহপুর গ্রামে পারিবারিক বিরোধে সুজন হোসেন (২৬) নামের এক …

Powered by themekiller.com