Home / খেলাধুলা / জিতেছে বার্সা, ড্র জুভদের

জিতেছে বার্সা, ড্র জুভদের

যমুনা নিউজ বিডি:   ভালো খেলোয়াড়ের সঙ্গে ভাগ্যদেবীর নিয়মিত আশীর্বাদও যদি জুটে যায়, তাহলে বোধ হয় ম্যাচের ফল নিয়ে খুব একটা না ভাবলেও চলে! বার্সেলোনার সঙ্গে চ্যাম্পিয়নস লিগে ঠিক তা-ই হচ্ছে। গেল মৌসুমের চ্যাম্পিয়নস লিগে বার্সেলোনার বিপক্ষে আত্মঘাতী গোল হয়েছিল পাঁচটি! কোয়ার্টার ফাইনালে, প্রথম লেগটা ছিল রোমার মাঠে এবং প্রতিপক্ষের মাঠে দুটি আত্মঘাতী গোলে এগিয়ে থাকা বার্সেলোনা পরে আরো দুটি গোল পায়, জিতে যায় ৪-১ গোলে। ইতিহাস যেন এবারও পুনরাবৃত্তি ঘটাচ্ছে! কোয়ার্টার ফাইনালের প্রথম লেগ প্রতিপক্ষের মাঠে এবং সেখান থেকে আত্মঘাতী গোলে ভর করে জিতে আসা। এইটুক তথ্য অবশ্য খুব স্বস্তিদায়ক, তবে পরের অংশটা অস্বস্তির। গতবার রোমার মাঠে ৪-১ গোলে জিতে এসেও নিজের মাঠে ৩-০ গোলে হেরে গিয়ে ‘অ্যাওয়ে গোল’ আইনে বিদায় নিতে হয়েছিল কাতালানদের। এবারও কোয়ার্টার ফাইনাল এবং আত্মঘাতী গোল, সমীকরণের শেষটাও কি তাহলে আগেরবারের মতোই হবে?

এক মৌসুমে সবচেয়ে বেশি পাঁচটি আত্মঘাতী গোল পক্ষে আসার রেকর্ডটা বার্সেলোনারই। উয়েফার রেকর্ড বই বলছে, আত্মঘাতী গোল থেকে সুবিধাভোগী শীর্ষ তিনটি ক্লাবের একটি হচ্ছে বার্সেলোনা, যাদের পক্ষে এখন পর্যন্ত ১৪টি আত্মঘাতী গোল হয়েছে। অন্য দুটি দল হচ্ছে চেলসি ও রিয়াল মাদ্রিদ। বার্সেলোনার উপকার করে ১৪তম আত্মঘাতী গোলদাতার নাম লুক শ। সের্হিয়ো বুশকেেজর বাড়ানো বল লিওনেল মেসি পেয়ে চমৎকার ক্রস বাড়িয়েছিলেন লুই সুয়ারেসের উদ্দেশ্যে। সেটা এই উরুগুইয়ান স্ট্রাইকার হেড করেছিলেন, বলটা লুক শর কাঁধে ঘষা খেয়ে চলে যায় জালে। ইতিহাসে প্রথমবারের মতো ওল্ড ট্র্যাফোর্ডে প্রথমে গোল করল বার্সেলোনা, যদিও সেটা এলো আত্মঘাতী গোলের রূপ ধরে! নকআউট পর্যায়ে প্রতিপক্ষের মাঠে সব শেষ সাত ম্যাচে এটা বার্সেলোনার প্রথম জয়। ন্যু ক্যাম্পে বাঘের চেহারা নিলেও গত কয়েক মৌসুম ধরেই নকআউট পর্বে অ্যাওয়ে ম্যাচে প্রত্যাশিত ফল পাচ্ছে না কাতালানরা। ড্র করেছে দুটি ম্যাচে আর হেরেছে চারটিতে। ২০১৫-১৬ সালের চ্যাম্পিয়নস লিগে আর্সেনালের বিপক্ষে ২-০ গোলে জেতার পর আর কোনো নকআউটের অ্যাওয়ে ম্যাচেই এক গোলের বেশি করতে পারেনি বার্সেলোনা। প্রথমার্ধে আত্মঘাতী গোল করে এলোমেলো হয়ে যাওয়া ম্যানইউ দ্বিতীয়ার্ধটা ভালো খেলেছে। তবে আক্রমণের চেয়ে রক্ষণেই তাদের মনোযোগ ছিল বেশি। গোটা ম্যাচে তাদের প্রতিপক্ষের জালে কোনো শটই নেই! অবশ্য এখন পর্যন্ত চ্যাম্পিয়নস লিগে নিজ মাঠে একটাই গোল করেছে ম্যানইউ, সেটাও গত নভেম্বরে যখন কোচ ছিলেন হোসে মরিনহো আর গোলটা করেছিলেন মারুয়ান ফেলাইনি। এঁদের দুজনের কেউই আর ওল্ড ট্র্যাফোর্ডে নেই।

ক্রুইফ অ্যারেনায় ১-১ সমতায় শেষ হয়েছে প্রথম লেগ। ক্রিস্তিয়ানো রোনালদোর হেড থেকে করা গোলের পরের মিনিটেই রক্ষণের ভুলে সূচনা করা কাউন্টার অ্যাটাক থেকে গোল করেছেন আয়াক্সের ব্রাজিলিয়ান ফরোয়ার্ড ডেভিড নেরেস। প্রথম লেগে প্রতিপক্ষের মাঠে জিতে এগিয়ে থাকল বার্সা।

অন্যদিকে জুভেন্টাস সমতায় শেষ করলেও প্রতিপক্ষের মাঠে গোল করতে পারায় খানিকটা হলেও স্বস্তিতে। সূত্র : উয়েফা

Check Also

বাংলাদেশের পঞ্চপাণ্ডবকে যেভাবে মূল্যায়ন করলেন রমিজ

যমুনা নিউজ বিডিঃ বিশ্বকাপের জন্য ইতিমধ্যে ১৫ সদস্যের চূড়ান্ত স্কোয়াড ঘোষণা করেছে বাংলাদেশ ক্রিকেট বোর্ড …

Powered by themekiller.com