Home / জাতীয় / কামাল হোসেন সন্ত্রাসী দলের সাথে ঐক্য করেছেন: খাদ্যমন্ত্রী

কামাল হোসেন সন্ত্রাসী দলের সাথে ঐক্য করেছেন: খাদ্যমন্ত্রী

যমুনা নিউজ বিডি: খাদ্যমন্ত্রী অ্যাডভোকেট কামরুল ইসলাম বলেছেন, বিএনপি যে একটি সন্ত্রাসীদল তা আন্তর্জাতিকভাবে কানাডার একটি আদালতে প্রমাণ হয়েছে। এ দলের চেয়ারপারসন এতিমদের টাকা মেরে জেলে আছেন আর ভাইস চেয়ারম্যান সাজাপ্রাপ্ত আসামি হয়ে বিদেশে অবস্থান করছেন। এরা নির্বাচনে আসতে ভয় পায় বলেই বিদেশিদের সাথে হাত মিলিয়ে আগামী নির্বাচনকে বানচাল করার চেষ্টা করছে। দেশের মানুষ আজ সোচ্চার। তারা সব কিছু বোঝেন।

আজ বুধবার সকালে আটি বাজার এলাকায় গণসংযোগ করে বর্তমান সরকারের উন্নয়নের লিফলেট বিতরণ শেষে এক পথসভায় তিনি এসব কথা বলেন।

খাদ্যমন্ত্রী বলেন, বর্তমানে শেখ হাসিনার হাত ধরে দেশে প্রচুর উন্নয়ন হয়েছে। শেখ হাসিনার হাত ধরেই আগামী ২০২৪ সালে আন্তর্জাতিকভাবে আমরা উন্নয়নশীল দেশের তালিকায় নাম লেখাতে যাচ্ছি।

মন্ত্রী বলেন, দেশ এখন উন্নয়নের রোল মডেল। শেখ হাসিনার আমলে রাস্তা-ঘাট, স্কুল-কলেজ-মাদরাসা, হাট-বাজারসহ সকল বিভাগে ব্যাপক উন্নয়ন হয়েছে। এক সময় দেশে সাত কোটি মানুষের খাদ্যের চাহিদা মেটানোর জন্য বিদেশের সাহায্য নিতে হতো আর এখন ষোল কোটি মানুষের খাদ্যের চাহিদা পুরণ করে আমরা বিদেশে রপ্তানী করতে পারি। কৃষকরা আজ বিনামূল্যে সার পায়, নিরবিচ্ছিন্ন বিদ্যুৎ পায়। কৃষিতে উৎপাদন বৃদ্ধি হয়েছে বলেই তা সম্ভভব হয়েছে।

তিনি বলেন, কৃষকদের আজ সারের জন্য প্রাণ দিতে হয় না, বিদ্যুতের জন্য সেচ বন্ধ থাকে না, সবই সম্ভব হয়েছে শেখ হাসিনার জন্য। আগে যেখানে ২৪ ঘণ্টায় বিদ্যুৎ পাওয়া যেতো ৪ ঘণ্টা আর এখন ২৪ ঘণ্টায় ৪ মিনিট বিদ্যুৎ বন্ধ থাকে কিনা সন্দেহ আছে।

মন্ত্রী আরো বলেন, দেশের স্বাস্থ্য খাতে আজ ব্যাপক উন্নয়ন হয়েছে। দেশে কমিউনিটি ক্লিনিক চালু হয়েছে। প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা মায়েদের কথা চিন্তা করে মাতৃত্বকালীন ভাতা চালু করেছেন, গর্ভকালীন ছুটি চালু করেছেন। আজ মুক্তিযোদ্ধাদের ১০ হাজার করে ভাতা দিচ্ছে। বঙ্গবন্ধু স্যাটেলাইট-১ উৎক্ষেপণের পর প্রযুক্তিক্ষেত্রে অনেক উন্নয়ন হয়েছে। আগামীতে মুক্তিযোদ্ধারা ঘরে বসে মোবাইলের মাধ্যমে তাদের ভাতা পাবেন।

মন্ত্রী ড. কামাল হোসেনের প্রতি আক্ষেপ করে বলেন, এক সময় জাতীর জনক বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমানের মন্ত্রীসভার পররাষ্ট্রমন্ত্রী ছিলেন, ছিলেন মুক্তিযুদ্ধের পক্ষের লোক। আর বর্তমানে তিনি একটি সন্ত্রাসী দলের সাথে ঐক্য করেছেন। আগামী একাদশ নির্বাচনে দেশের মানুষ নৌকার বিজয় এনে শেখ হাসিনার সাথে দেশ উন্নয়নের ঐক্য গড়বেন।

ওদের সাংগঠনিক শক্তি নাই উল্লেখ করে তিনি বলেছেন, ওদের ঐক্য হয়েছে খুনিদের ঐক্য। ওদের ঐক্য সন্ত্রাসীদের ঐক্য। এটা ফলপ্রসূ হবে না।

পথসভার আগে খাদ্যমন্ত্রী আটিবাজার, আটি জয়নগর, আটি নয়াবাজার, কুললচর, ঘাটারচর, দাড়িপাড়া, আটি মীরকাদিম মাস্টার গ্রামসহ আশপাশের বেশকিছু এলাকায় গণসংযোগ করে শেখ হাসিনা সরকারের উন্নয়নের লিফলেট বিতরণ করে নৌকার পক্ষে ভোট চান।

পথসভায় অন্যান্যের মধ্যে বক্তব্য দেন কেন্দ্রীয় যুবলীগের সাবেক সদস্য ইউসুফ আলী চৌধুরী সেলিম, ঢাকা জেলা যুবলীগ সভাপতি শফিউল আযম খান বারকু, কেন্দ্রীয় আওয়ামী লীগের উপকমিটির সহসম্পাদক আলতাফ হোসেন বিপ্লব, ঢাকা জেলা আওয়ামী লীগ নেতা হাজি আবু সিদ্দিক, থানা আওয়ামী লীগ নেতা হাজি মো. আলাউদ্দিন, মো. আইয়ুব আলী, অ্যাড. এনামুল হক, মডেল থানা যুবলীগ নেতা আখের হোসেন আখি, মো. নাজিম উদ্দিন নাজিম, মো. রনি, মোকলেছ, টিপু, অনিক হোসেন পিন্ট, মো. মিন্টু, ছাত্রলীগ নেতা মো. আলমগীর, স্বেচ্ছাসেবকলীগ নেতা মো. কামাল আটি বাজার বরিক সমিতির সভাপতি হাজি মো. জাকিকর হোসেনসহ প্রায় এক সহস্রাধীক নেতাকর্মী।

Check Also

দেশের মানুষ নির্বাচনমুখী হয়ে উঠেছে : নাসিম

যমুনা নিউজ বিডি: স্বাস্থ্য ও পরিবার কল্যাণ মন্ত্রী মোহাম্মদ নাসিম বলেছেন, প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার আহ্বানে সাড়া …

Powered by themekiller.com