Breaking News
Home / সারাদেশ / ইনবক্সে অভিযোগ পেয়ে ছুটে গেলেন ম্যাজিস্ট্রেট

ইনবক্সে অভিযোগ পেয়ে ছুটে গেলেন ম্যাজিস্ট্রেট

যমুনা নিউজ বিডিঃ ফেসবুক ইনবক্সে একজন নারী যাত্রীর ক্ষুদে বার্তা পেয়ে ঢাকা থেকে কুমিল্লাগামী বাস গন্তব্যে না আসা পর্যন্ত পুরো বিষয়টিৎতদারকি করেন কুমিল্লা জেলা প্রশাসনের নির্বাহী ম্যাজিস্ট্রেট আবু সাঈদ এবং
হাইওয়ে পুলিশ। ৫জুন শুক্রবার দুপুরের দিকে এ ঘটনা ঘটে কুমিল্লায়। নারী যাত্রীকেভয়ভীতি প্রদর্শন ও হেনস্থা করার বিষয়টির সত্যতা পেয়ে চালক ও
সহযোগী দুই স্টাফকে শেষবারের সতর্ক করে দিয়ে ভ্রাম্যমাণ আদালতের
মাধ্যমে ২ হাজার টাকা জরিমানা করেন জেলা প্রশাসনের ওই নির্বাহী
ম্যাজিস্ট্রেট। জানা যায়, স্বাস্থ্যবিধি না মেনে অতিরিক্ত যাত্রী পরিবহন ও সরকার নির্ধারিত ৬০ ভাগের চেয়ে অতিরিক্ত ভাড়া নিয়ে
প্রতিবাদ করেন ঢাকা থেকে কুমিল্লাগামী প্রাইম প্লাস পরিবহনের
যাত্রী হালিমা খাতুন। এ নিয়ে বাসের অন্যান্য যাত্রীদের সামনেই ওই বাসের
স্টাফরা ওই নারী যাত্রীর সাথে বাকবিতণ্ডার এক পর্যায়ে তাকে হেনস্থা
করাসহ ভয়ভীতি দেখায়। এ বিষয়ে শুক্রবার বেলা ১১টার দিকে ওই
নারী যাত্রী কুমিল্লার নির্বাহী ম্যাজিস্ট্রেট আবু সাঈদের ফেসবুক
ইনবক্সে অভিযোগ করেন। অভিযোগ পেয়ে নির্বাহী ম্যাজিস্ট্রেট হাইওয়ে
পুলিশের সহায়তায় গাড়িটি কুমিল্লায় না আসা পর্যন্ত বিষয়টি মনিটরিং করেন। পরে দুপুরের দিকে বাসটি ঢাকা-চট্টগ্রাম
মহাসড়কের সদর উপজেলার আলেখাচর
বিশ্বরোডে গতিরোধ করে হাইওয়ে
পুলিশ।
পরবর্তীতে বাসের অন্যান্য
যাত্রী, চালক, স্টাফদের সাথে কথা
বলে অভিযোগের সত্যতা পেয়ে
বাসের চালক ও দুই স্টাফকে শেষ
বারের সতর্ক করে ভ্রাম্যমাণ
আদালতের মাধ্যমে ২ হাজার টাকা জরিমানা
করেন জেলা প্রশাসনের নির্বাহী
ম্যাজিস্ট্রেট মো. আবু সাঈদ।এ বিষয়ে
অভিযোগকারী হালিমা খাতুন সাংবাদিকদের
বলেন, স্বাস্থ্যবিধি ও ভাড়া নিয়ে প্রতিবাদ
করায় বাসের স্টাফরা খারাপ আচরণ করে ও
অতিরিক্ত ভাড়া না দিলে বাস থেকে
নামতে দিবে না বলে জানান। কিন্তু এ সময়
বাসের ভেতর অন্য যাত্রীরা প্রতিবাদ
করেনি। পরবর্তীতে আমি
ম্যাজিস্ট্রেট আবু সাঈদ মহোদয়কে
ম্যাসেজ করার সাথে সাথে বার বার কল
দিয়ে তিনি আমার লোকেশন নিশ্চিত
করেন। পরবর্তীতে হাইওয়ে পুলিশও
আমাকে কল দিয়ে জিজ্ঞেস করে
আমি কোথায় আছি। শুধু ফেসবুক
ইনবক্সে ক্ষুদে বার্তা পাঠালে
ম্যাজিস্ট্রেট ও হাইওয়ে পুলিশ এভাবে
মানুষের পাশে গিয়ে দাঁড়াবে তা চিন্তা
করিনি।
সবাই সচেতন ও প্রতিবাদী হলে
আমাকে হয়তো এভাবে প্রশাসনের
সহায়তা নিতে হতো না। তিনি জেলা
প্রশাসনের কর্মকর্তা ও হাইওয়ে
পুলিশকে ধন্যবাদ জানান।
এ বিষয়ে নির্বাহী ম্যাজিস্ট্রেট মো.
আবু সাঈদ বলেন, গত কিছুদিন আগে আমি
ফেসবুক পোস্টে গণপরিবহনে
স্বাস্থ্যবিধি অমান্য ও সরকার নির্ধারিত
থেকে অতিরিক্ত ভাড়া দাবি করলে
ইনবক্সে ম্যাসেজ করার অনুরোধ করি।
বিগত কয়েকদিনে ব্যাপক সাড়া পেয়েছি।
অভিযোগের সত্যতা যাচাই করে
তাৎক্ষণিক প্রয়োজনীয় ব্যবস্থা গ্রহণ
করি। ইতোমধ্যে জেলা প্রশাসনে
আমরা ২০টির বেশি মামলা ও ৩০টির বেশি
বেশি অভিযোগ নিস্পত্তি করেছি।
তিনি আরও বলেন, বাস যাত্রী হালিম খাতুন
ফেসবুক ইনবক্স থেকে আমাকে
অভিযোগ করে, পরবর্তীতে
হাইওয়ে পুলিশের আন্তরিক সহযোগিতায়
বাসটির গতিরোধ করি। অভিযোগের
সত্যতা পাওয়ায় সতর্ক করে অর্থদণ্ড করি।

 

Check Also

করোনায় মারা গেলেন সেই সাহেদের বাবা

যমুনা নিিউজ বিডিঃ করোনা টেস্টের ভুয়া রিপোর্ট প্রদান, প্রতারণা ও প্রভাব বিস্তার করে দেশজুড়ে আলোচনায় …

%d bloggers like this:

Powered by themekiller.com